রোগী দেখতে যাওয়ার ফজিলত ও সুন্নাহ, মুমূর্ষু রোগীর জন্য দোয়া,অসুস্থকে দেখতে যাওয়া,আস আলুল্লাহাল আজিম,অসুস্থ ব্যক্তির জন্য রাসূলে আরবি দোয়া

  

অসুস্থ ব্যক্তিকে দেখতে যাওয়ার ফজিলত,রোগ মুক্তির দোয়া,অপারেশনের পূর্বে যে দোয়া করতে হয়

ইবনে আব্বাস (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুল (সা.) একদিন অসুস্থ একজন বেদুঈনকে দেখতে গেলেন। বর্ণনাকারী বলেন, রাসুল (সা.)-এর অভ্যাস ছিল যে পীড়িত ব্যক্তিকে দেখতে গেলে বলতেন, কোনো দুশ্চিন্তার কারণ নেই, ইনশাআল্লাহ (অসুস্থতা থেকে) তুমি পবিত্র হয়ে যাবে। ওই বেদুঈনকেও তিনি বলেন। চিন্তা করো না গুনাহ থেকে তুমি পবিত্র হয়ে যাবে, ইনশাআল্লাহ।


বেদুঈন বলল, আপনি বলেছেন (অসুস্থতা থেকে) তুমি পবিত্র হয়ে যাবে। তা নয়। বরং এ তো এমন এক জ্বর, যা বয়োবৃদ্ধের ওপর প্রভাব ফেলছে। তাকে কবরের সাক্ষাৎ করাবে। তখন রাসুল (সা.) বলেন, তা-ই হোক। (বুখারি, হাদিস : ৩৬১৬)

রোগী দেখার সময় যে দোয়া পড়বেন তা নিম্নে দেওয়া হলো- 


দোয়া : লা বা’সা লাকা তহুরুন ইনশাআল্লাহ।  


বাংলা অর্থ : ‘কোনো দুশ্চিন্তার কারণ নেই, ইনশাআল্লাহ (অসুস্থতা থেকে) তুমি পবিত্র (মুক্ত) হয়ে যাবে। ’


রোগী দেখার ফজিলত : রোগী দেখার অসংখ্য ফজিলতের কথা হাদিসে বর্ণিত হয়েছে। হজরত আলী (রা.) বর্ণনা করেন, আমি রাসূল (সা.) কে বলতে শুনেছি যে ব্যক্তি সকালবেলা কোনো অসুস্থ মুসলমানকে দেখতে যায়, সত্তর হাজার ফেরেশতা বিকাল পর্যন্ত তার জন্য দোয়া করতে থাকে। আর বিকেলে রোগী দেখতে গেলে সকাল পর্যন্ত সত্তর হাজার ফেরেশতা দোয়া করে) -সুনানে তিরমিজি: ৯৬৭

(ads1)

(getButton) #text=(আল কোরআন বাংলা অনুবাদ সহ এক সাথে ) #icon=(link) #color=(#08b2c4)


প্রতিটি মানুষই চায় সুস্থ থাকতে। অসুস্থতা কারও কাম্য হতে পারে না। ফলে সুস্থতা ধরে রাখতে সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলেন অনেকে। কিন্তু এরপরও অসুস্থতা পেয়ে বসে নানা সময়ে। সে হিসেবে সুস্থতা-অসুস্থতা মিলেই জীবন। আর ইসলামে সেবা-শুশ্রূষা ইত্যাদি রোগীর অধিকার। রোগী ও অসুস্থকে দেখতে যাওয়া মহানবী (সা.)-এর সুন্নতও বটে।


হাদিসে রাসুল (সা.) একটি দোয়া শিখিয়েছেন, রোগীকে দেখে দোয়াটি পড়লে আল্লাহ তাআলা ওই রোগ থেকে রক্ষা করেন। পাঠকারীকে নিরাপদে ও সুস্থ রাখেন। হাদিসের ভাষ্য অনুযায়ী যে ব্যক্তি কোনো রোগীকে দেখে এই দোয়া পড়বে, ইনশাআল্লাহ সে ওই রোগে কখনো আক্রান্ত হবে না।


আবু হুরায়রা (রা.) ও আবদুল্লাহ ইবনে উমর (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে আল্লাহর রাসুল (সা.) বলেন, যে ব্যক্তি কোনো রোগাক্রান্ত বা বিপদগ্রস্ত লোককে দেখে বলে, ‘আলহামদু লিল্লাহিল্লাজি আ-ফানি মিম্মাবতালাকা বিহি, ওয়া ফাদদলানি আলা কাছিরিম মিম্মান খলাকা তাফদিলা’, সে ওই ব্যাধিতে কখনো আক্রান্ত হবে না।’ (তিরমিজি, হাদিস : ৩৪৩২; জামেউস সগির, হাদিস : ৮৬৬৭; সিলসিলাতুস সহিহা, হাদিস : ২৭৩৭)


অসুস্থ ব্যক্তির জন্য দোয়া:

الْحَمْدُ لِلَّهِ الَّذِي عَافَانِي مِمَّا ابْتَلاَكَ بِهِ وَفَضَّلَنِي عَلَى كَثِيرٍ مِمَّنْ خَلَقَ تَفْضِيلاً


বাংলা উচ্চারণ : আলহামদু লিল্লাহিল্লাজি আ-ফানি মিম্মাবতালাকা বিহি, ওয়া ফাদদলানি আলা কাছিরিম মিম্মান খলাকা তাফদিলা।


অর্থ : সব প্রশংসা আল্লাহ তাআলার, তিনি তোমাকে যে ব্যাধিতে আক্রান্ত করেছেন, তা থেকে আমাকে নিরাপদ রেখেছেন এবং তার অসংখ্য সৃষ্টির ওপর আমাকে সম্মান দান করেছেন।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url