Header Ads Widget


 

ইসলামে উচ্ছিষ্ট জিনিসের বিধান,ইসলামে পবিত্র উচ্ছিষ্টসমূহ বিধান,ইসলামে মানুষের উচ্ছিষ্ট বিধান,ইসলামে বিড়ালের উচ্ছিষ্ট বিধান,ইসলামে অপবিত্র উচ্ছিষ্ট বিধান,ইসলামে শূকরের উচ্ছিষ্ট বিধান,ইসলামে কুকুরের উচ্ছিষ্ট বিধান

 

উচ্ছিষ্ট


পানকারী পান করার পর পাত্রে যা অবশিষ্ট থাকে তাকেই উচ্ছিষ্ট বলে


উচ্ছিষ্ট বস্তু মৌলিকভাবে পবিত্র যতক্ষণ না এর নাপাকির পক্ষে কোনো প্রমাণ পাওয়া যায় :


১- পবিত্র উচ্ছিষ্টসমূহ

ক) মানুষের উচ্ছিষ্ট

হাদীসে এসেছে, নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আয়েশা রাযি. এর উচ্ছিষ্ট থেকে পান করতেন, এমনকি তিনি ঋতুগ্রস্ত থাকা অবস্থায়ও। তিনি সেখানে মুখ লাগাতেন যেখানে আয়েশা রাযি. মুখ লাগিয়েছেন।’(বর্ণনায় মুসলিম)



খ) বিড়ালের উচ্ছিষ্ট

এর প্রমাণ, একটি বিড়ালের পান করা পানির ব্যাপারে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘এটা অপবিত্র নয়। এটা তোমাদের কাছে বার বার আসা যাওয়া করে।’(বর্ণনায় তিরমিযী)


গ) যেসকল প্রাণীর গোশত খাওয়া হয় এবং গাধা ও খচ্চর, হিংস্র জন্তু, শিকারী পাখির উচ্ছিষ্ট ইত্যাদির হুকুম

এসব পবিত্র; কেননা মৌলিকভাবে সকল বস্তুই পবিত্র যতক্ষণ না তার অপবিত্র হওয়ার পক্ষে কোনো শরয়ী দলিল পাওয়া যায়। আর এ ক্ষেত্রে অপবিত্র হওয়ার দলিল অনুপস্থিত। উপরন্তু নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম গাধার ওপর আরোহন করতেন, গাধা তাঁর আমলে যানবাহন হিসাবে ব্যবহৃত হত।



২- অপবিত্র উচ্ছিষ্ট

ক) কুকুরের উচ্ছিষ্ট

হাদীসে এসেছে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘তোমাদের কারো পাত্রে যদি কুকুর মুখ দেয় তাহলে তা সাতবার ধুইতে হবে, প্রথমবার মাটি দিয়ে।(বর্ণনায় বুখারী ও মুসলিম)


খ) শূকরের উচ্ছিষ্ট

কুকুরের যে হুকুম শূকরেরও একই হুকুম। কারণ উভয় প্রাণী প্রকৃতগতভাবে অপবিত্র।

Post a Comment

0 Comments